1. multicare.net@gmail.com : Chattolar Alo :
রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
লোহাগাড়ায় মালবাহী ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে প্রাণ হারালো ২জন বান্দরবানে মাদক মামলার ২২ হাজার ৮০০ পিস ইয়াবা ধ্বংস বান্দরবানে বিনা ভোটে জয়ী হতে যাচ্ছেন ২ চেয়ারম্যান ও ৬ মেম্বার পদপ্রার্থী পেশায় ও মানবিকতার অগ্রসৈনিক চট্টগ্রাম এ্যম্বুলেন্স মালিক সমবায় সমিতি লিমিটেড বান্দরবাননের ৭উপজেলার মধ্যে ১০০ টি স্কুল ও কলেজের সেইফ স্পেস ও অন্যান্য উপকরণ বান্দরবানে সেনা জোনে ১১০ ব্রিগেড সিগন্যাল কোম্পানীর ৪৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠিত লোহাগাড়ায় বাল্যবিবাহ নীরোধ ও করোনাকালীন সচেতনতা নিয়ে উঠান বৈঠক স্কিলস এ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (STEP) সমাপ্ত প্রকল্প থেকে শিক্ষকদের চাকরি রাজস্বখাতে  স্থানান্তর ও ১৮ মাসের বকেয়া বেতন ভাতা পরিশোধের দাবিতে মানববন্ধন” বান্দরবানে ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত ১৩ জন বান্দরবানে সড়ক দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে ৪ জন

বান্দরবানে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রী কে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড,।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২২
  • ১৪ বার পড়া হয়েছে

 

শচীন চক্র বর্তী বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি ঃ- বান্দরবানে পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী মনোয়ারা বেগমকে হত্যার দায়ে স্বামী মো: আবুল কালামের যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে বান্দরবানের জেলা ও দায়রা জজ মো. এহ্সানুল হক এ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় আসামি মো.আবুল কালাম আদালতে উপস্থিত ছিলেন। সুত্রে জানা যায়, দন্ডপ্রাপ্ত আসামি মো:আবুল কালাম (৪৫) বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ৩নং ঘুমধুম ইউনিয়নের বাইশফাঁড়ি ঠান্ডা ঝিরি ৩নং ওয়ার্ডের মৃত মকবুল আলীর ছেলে। তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম একই এলাকার মো. সৈয়দ আলমের মেয়ে। জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) বেদারুল আলম জানান, ২০১৩ সালে ১৭মার্চ সকালে মো.আবুল কালাম তার বসতবাড়িতে পারিবারিক কলহের জেরে তার দ্বিতীয় স্ত্রী মনোয়ারা বেগমকে গাছের মোটা লাঠি দিয়ে মাথায় সজোরে আঘাত করে গুরুতর জখম করে হত্যা করে পালিয়ে যান। এ ঘটনায় ১৭ মার্চ নিহত মনোয়ারা বেগমের বাবা মো: সৈয়দ আলম বাদী হয়ে জামাতা মো: আবুল কালামের বিরুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় এজাহার দায়ের করলে পুলিশ ২০১৪ সালের ১৫ অক্টোবর এ ঘটনায় মো: আবুল কালামকে অভিযুক্ত করে চূড়ান্ত প্রতিদেন দাখিল করে। আসামি মামলার শুরু থেকে পলাতক থাকায় আদালত কর্তৃক আসামির জন্য এসডিএল নিয়োগ করা হয়। আদালত ১১জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের পর মামলার যুক্তিতর্ক শুনানীর জন্য দিন ধার্য করেন। পরে আসামি মামলার যুক্তিতর্ক শুনানীর পর্যায়ে ৩নভেম্বর আদালতে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করে জামিনের প্রার্থনা করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। আসামিপক্ষ থেকে এ মামলায় ৪ জন সাফাই সাক্ষীকে পরীক্ষা করার পর আদালত এ রায় দেন। এদিকে মামলার বাদী ও মনোয়ারা বেগমের বাবা মো: সৈয়দ আলম রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন বলেন, আসামি মো: আবুল কালাম তার স্ত্রীকে হত্যা করে। এ ঘটনায় সাক্ষ্য প্রমাণে বিষয়টি প্রমাণিত হয়। আদালতের বিচারক তাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং ৫০হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডদেশ দেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট